Home / নারী স্বাস্থ্য / ওজন কমানোর সহজ প্রাকৃতিক উপায়

ওজন কমানোর সহজ প্রাকৃতিক উপায়

ওজন কমানো আসলে খুব কঠিন কাজ নয়। একটু ইচ্ছে আর সামান্য ধৈর্য (Patience) থাকলেই তা সম্ভব। আর তা যদি ঘরোয়া উপায়ে হওয়া যায়, তাহলে তো মন্দ হয় না, কী বলুন?ওজন কমানোর সহজ কিছু উপায় জানিয়েছে বার্তা সংস্থা ইউএনবি। আসুন জানি সেগুলো :ওজন

ওজন কমানোর সহজ প্রাকৃতিক উপায়

১. গ্রিন টি:

গবেষণায় দেখা গেছে, প্রতিদিন চার কাপ গ্রিন টি পান করলে প্রতি সপ্তাহে অতিরিক্ত ৪০০ ক্যালরি পর্যন্ত ক্ষয় (Decay) করা সম্ভব। গ্রিন টি-তে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এটি আমাদের দেহের ওজন ঠিক রাখতে সাহায্য করে। তাই প্রতিদিন গ্রিন টি অবশ্যই পান করুন।

২. তালিকা:

যেদিন থেকে ওজন কমানোর কথা ভাববেন, সেদিন প্রথমেই কী কী খাবেন এবং কখন খাবেন, তার একটা তালিকা (List) বানিয়ে নিন।

৩. নাচ:

যদি আপনি নৃত্যশিল্পী নাও হন, তাহলে গানের সঙ্গে পায়ে তাল মেলান। ১০ মিনিট ধরে তাল মিলিয়ে দেখুন। এই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ৫৮ শতাংশ ক্যালরি ঝড়াতে পারবেন।

৪. মসলাদার খাবার:

শুধু সেদ্ধ খাবার কখনই খাবেন না। মসলা, যেমন—হলুদ, ধনে, জিরে গুঁড়া ইত্যাদি মসলাগুলোকে কখনো খাদ্যতালিকা থেকে বাদ দেবেন না। কারণ, এ মসলাই আপনার ওজন কমাতে সাহায্য করবে।

৫. ফোনে ঘুরে কথা বলুন:

যখন ফোনে কথা বলবেন, তখন একটা জায়গায় বসে কখনই কথা বলবেন না। সব সময় ঘুরে ঘুরে কথা বলুন। এইভাবে ১০ মিনিটে ৩৬ শতাংশ ক্যালরি নষ্ট (Wasted) করতে পারবেন।

৬. পানি পান করুন:

পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করুন। পানি পানের কারণে আপনার শরীর থেকে অতিরিক্ত (Extra) টক্সিন বের করে দেওয়া সম্ভব হবে।

৭. ঘর মুছুন:

বাড়ির কাজ করুন। যেমন, ঘর মুছলে সবচেয়ে থেকে বেশি ক্যালরি নষ্ট করা যায়। এভাবে ৪২ শতাংশ ক্যালরি নষ্ট করা সম্ভব।

৮. চিনিকে না বলুন:

চিনি খাওয়া একেবারে ছেড়ে দিন। এক চা চামচে মোট ১৬ শতাংশ ক্যালরি থাকে। তাই চায়ে বা দুধে কখনোই চিনি দিয়ে খাবেন না।

৯. তাড়াতাড়ি রাতের খাবার শেষ করুন:

যত তাড়াতাড়ি সম্ভব রাতের খাবার খেয়ে নিন। কারণ, রাতে খাবার খেয়েই শুয়ে পড়লে মুটিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা (Apprehension) বাড়ে। আর রাতে যদি খিদে পায় তখন এক গ্লাস দুধ খেতে পারেন।

১০. জগিং করুন:

বাইরে দৌড়াতে যাওয়ার কোনো দরকার নেই। পারলে নিজের ঘরের মধ্যেই জগিং করতে পারেন।

১১. দিনে ঘুম বাদ দিন:

রাতে আট ঘণ্টা ঘুমানো খুবই দরকার। কিন্তু কখনই দিনের বেলায় ঘুমাবেন না। এতে মুটিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা বেড়ে যায়।

১২. আস্তে আস্তে খান:

যখন খাবার খাবেন, তখন জলদি না খেয়ে আস্তে আস্তে খান। এতে আপনার পেট ঠিকঠাকভাবে (Properly) ভরবে। যদি খুব বেশি তাড়াহুড়ো করে খান, তাহলে প্রয়োজন থেকে অনেক বেশি খাবার খেয়ে ফেলতে পারেন।

১৩. খাবার আগে পানি খান:

খাবার খাওয়ার আগে সব সময় এক গ্লাস পানি খান। এ ছাড়া জাঙ্ক ফুড একেবারেই খাবেন না। যেমন : ক্রিম বিস্কুট, বার্গার ইত্যাদি। যতটা পারবেন বাড়ির তৈরি (Made) খাবার খান। এতে শরীর ভালো থাকবে এবং মুটিয়েও যাবেন না।

১৪. ছোট প্লেটে খান:

প্লেট বদলে ফেলুন। যে প্লেটে খাবার খান, তার থেকে ছোট প্লেটে খান। এতে মনে হবে বেশি খেয়ে ফেলছেন। তাই কম খাবার খেতে শুরু করবেন।

১৫. খিদে পেলে পপকর্ন খান:

শুধু সিনেমা হলে গেলেই পপকর্ন খাবেন না। যখনই খিদে পাবে, তখনই পপকর্ন খেতে পারেন। এটি কম ক্যালরিযুক্ত (Caloric) খাবার। তাই মুটিয়ে যাওয়ার ঝুঁকি কম।

Check Also

পিরিয়ড

পিরিয়ড নিয়মিত না হলে যা করবেন

পিরিয়ড (Period) নারীদের কাছে একটি পরিচিত বিষয়। প্রত্যেক নারীর সাধারণত মাসে একবার পিরিয়ড হয়ে থাকে। ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *